Asef / মার্চ 21, 2020

পৃথিবীর প্রথম পাঁচ রেয়ার ক্যামেরার স্মার্টফোন নিয়ে এলো নোকিয়া।

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কয়েক বছর আগেও কী কেউ ভেবেছিলো কোনো স্মার্ট ফোনে পাঁচটি ক্যামেরা থাকবে? এই কল্পনাতীত ব্যাপারটিকে সত্য করে জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্রান্ড নোকিয়া নিয়ে এলো পৃথিবীর প্রথম পাঁচটি রেয়ার ক্যামেরা যুক্ত স্মার্টফোন “নোকিয়া ৯ পিওরভিউ”। বার্সেলোনা শহরে অনুষ্ঠিত “মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস ২০১৯” -এ গত ২৪ ফেব্রুয়ারি জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে প্রকাশ ঘটলো অত্যাধুনিক এই স্মার্টফোনটির। এটি মূলত এর ক্যামেরার জন্য সারা বিশ্বের প্রযুক্তি প্রেমিদের আগ্রহের কেন্দ্র বিন্দুতে রয়েছে।

চলুন প্রথমেই জেনে নিই ডিভাইসটির ক্যামেরা স্পেসিফিকেশন। এতে রিয়ার ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে পাঁচটি ১২ মেগাপিক্সেলের সেন্সর যার পিক্সেল সাইজ ১.২৫ মাইক্রোন। সবগুলো সেন্সরের অ্যাপারচার ১.৮ হওয়ায় খুব কম আলোতেও অসাধারণ সব ছবি তুলা যাবে এই স্মার্টফোনে। পাঁচটি ক্যামেরার মধ্যে দুইটি আরজিবি কালার শ্যুটার ও বাকি তিনটি মনোক্রোম সেন্সর হিসেবে ব্যবহৃত হবে। পাঁচটি ক্যামেরা ভিন্ন ভিন্ন দিক থেকে ছবি তুলে পরবর্তীতে সবগুলো একত্রিত করে মূল ছবিটি তৈরি করে। ফলে চমকপ্রদ সব ছবি পাওয়া যাবে ডিভাইসটি থেকে। ক্যামেরাগুলো ২৮ মিলিমিটার ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স হওয়ায় বেশ প্রশস্ত ছবিও তুলা যাবে এটি দিয়ে। এছাড়াও জেইস অপটিক্স, ডুয়েল এলিডি ডুয়েল টোন ফ্লাস,  এইচডিআর ও প্যানোরমা সুবিধা রয়েছে ফোনটিতে। এতে ২১৬০পি ৩০এফপিএস ও ১০৮০পি ৩০এফপিএস কোয়ালিটির ভিডিও করা যাবে। সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ১.০ মাইক্রোন পিক্সেল সাইজের ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফোনটিতে থাকছে ১৪৪০x২৮৮০ রেজোলিউশনের ৫.৯৯ ইঞ্চি পি-ওলেড টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে। যা ভিডিও দেখায় যোগ করবে অন্য মাত্রা। ডিসপ্লে প্রটেকশন হিসেবে থাকছে ৫ম প্রজন্মের কর্নিং গরিলা গ্লাস। তাই বলা যায় বেশ শক্ত-পক্ত হবে ডিসপ্লেটি। তবে ডিসপ্লেতে থাকছেনা কোনো নচ। এতে এই সময়ের বহুল ব্যবহৃত শক্তিশালী কোয়ালকম স্নেপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসর ও অ্যাড্রিনো ৬৩০ জিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। ৬ জিবির বিশাল র্যাম থাকছে এতে। শক্তিশালী প্রসেসর থাকায় যেকোনো বড় গেম অনায়সে খেলা যাবে এই ডিভাইসে। প্রতিদিনের কাজ ও মাল্টিটাস্কিংয়েও কোনো সমস্যা হবে না। ১০ নেনোমিটার আর্কিটেকচারের এই প্রসেসরটি বেশ ব্যাটারি সেইভিং। ফিঙ্গারপ্রিন্ট, জায়রো সহ সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় সেন্সর থাকছে এতে। এই স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ৩৩০০ মিলি এম্পায়ার ব্যাটারি৷ যদিও এখন বেশির ভাগ কম্পানিই ৪০০০ মিলি এম্পায়ার ব্যাটারি দিচ্ছে। তবুও এতে ব্যাটারি সেভিং চিপ ব্যবহার করায় একবার চার্জ দিয়ে দিনব্যাপী ব্যবহার করা যাবে। ফোনটিতে রয়েছে ইউএসবি টাইপ-সি চার্জিং পোর্ট যা দিয়ে খুব দ্রুত চার্জ করা যাবে ফোনটি। কিন্তু এতে থাকছেনা কোনো হেডফোন জ্যাক। ডুয়েল সিম ব্যবহারের সুযোগ থাকলেও সিম স্লটটি হাইব্রিড হওয়ায় একই সময় দুইটি সিম অথবা একটি সিম ও একটি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করতে হবে। ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকেছে এতে যা অনেকের জন্যই পর্যাপ্ত। তারপরও ৫১২ জিবি পর্যন্ত মেমোরি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা রয়েছে। স্মার্টফোনটি গুগলের এনড্রয়েড ওয়ান প্রজেক্টের আওতায় থাকায় এতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে খুবই জনপ্রিয় স্টক এনড্রয়েড।

মার্চের শুরু থেকে ফোনটি বাজারে পাওয়া যাবে৷ এর দাম ধরা হয়েছে ৬৯৯ মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫৯০০০ টাকা(ভ্যাট ছাড়া)। দামের হিসেবে যেসব চমৎকার ফিচার দিচ্ছে তা আদর্শই বলা যায়। অসাধারণ এই পাঁচ ক্যামেরার ফোনটি হাতে নিতে আপনি তৈরী তো?

(Visited 17 times, 16 visits today)

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Submit a Comment

Must be required * marked fields.

:*
:*