what-are-cookies-and-why-do-websites-use-cookies

সাদ ইবনে রহমান / ফেব্রুয়ারী 13, 2021

কুকি কি? ওয়েবসাইটগুলো কেন কুকি ব্যবহার করে ?

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে

কুকি বর্তমান ইন্টারনেট ব্রাউজিং ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেক সময় কোনো ওয়েবসাইট ভিজিট করলে একটি পপ আপ ভেসে ওঠে “ This site uses cookies… Do you want to accept it?”। আসলে এটি আধুনিক ওয়েবসাইটের একটি অংশ । ইউজার কে আরও সহজ এবং পার্সোনালাইজড অভিজ্ঞাতা দিতে একে ব্যবহার করা হয়। শপিং কার্ট, ইউজারের সেটিং এবং লগ ইন ইনফর্মেশন মনে রাখতে এবং আরও অনেক ফিচারে ওয়েবসাইটের কুকি ব্যবহার করা হয়।

কিন্তু এই পদ্ধতি হ্যাকারদের জন্য বহু মূল্যবান সম্পদ হতে পারে। অনলাইনে আপনার প্রাইভেসি রক্ষা করা কঠিন হয়ে দাড়াতে পারে। যদি আপনার কুকি সম্পর্কে মোটামুটি জ্ঞান থাকে তাহলেই একে প্রতিরোধ করতে পারবেন।

কুকি কি?

কুকি হলো একটি টেক্সট ফাইল যেটি ছোট ডেটার টুকরো হিসেবে আপনার লগিন ইনফর্মেশন ও অন্যান্য পার্সোনাল ইনফর্মেশন ধরে রাখার জন্য ব্যবহার করা হয়। আপনি যখন পুনরায় ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করবেন তখন এই ছোট ডেটার টুকরো কম্পিউটারকে ইন্টারনেটে আইডেন্টিফাই করতে ইনফর্মেশন দেয়। বিভিন্ন ধরণের কুকি রয়েছে । যেমন HTTP-কুকি , ম্যজিক-কুকি ইত্যাদি। HTTP কুকিজ ওয়েবসাইটে এক্সপেরিয়েন্স ইম্প্রভ করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

আপনার কানেকশন অনুসরে ওয়েবসাইট সার্ভারের মাধ্যমে ডেটা কুকিজে জমা রাখা হয় এবং আপনার ও আপনার কম্পিউটারের জন্য একটি ইউনিক আইডি দিয়ে দেয়া হয়। এই ইউনিক আইডির মাধ্যমেই ওয়েবসাইট পরবর্তীতে আপনার কম্পিউটারকে চিনতে পারে। যখন আপনি ওয়েবসাইটের সাথে ব্রাউজার দিয়ে কানেক্ট হন তখন সার্ভার কুকির আইডি রিড করে সে অনুসারে আপনাকে সার্ভ করে।

কুকির নাম কেন কুকি হলো?

কুকি মানে হলো ছোট বিস্কিট। কিন্তু বিস্কিটের সাথে এর সম্পর্ক কি? কেনইবা এই নাম রাখা হলো? অনেকেই হয়তো ফরচুন কুকির নাম শুনে থাকবেন। এই কুকিগুলোতে একটি কাগজের টুকরো গুঁজে দেয়া হয়। যাতে মজা করার জন্য আপনার ভবিষ্যৎ সম্পর্কে মেসেজ লেখা থাকে। একইভাবে কুকি আপনার জন্য একটি মেসেজ দিচ্ছে যাতে করে ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর সময় আপনার কম্পিউটার কে কোন ওয়েবসাইট পুনরায় চিনতে পারে। এজন্যেই ওয়েবসাইটের কুকিকে কুকি নাম দেয়া হয়েছে।

 

কুকির নাম কেন কুকি হলো?

 

বিভিন্ন প্রকারের কুকি:

বেশিরভাগ কুকিই সম্পূর্ণ নিরাপদ। তবে কিছু কিছু আপনার সম্মতি ছাড়াই আপনাকে ট্রাক করতে ব্যবহার করা হতে পারে। আবার বৈধ কুকিও যদি অননুমোদিত কারো কাছে চলে যায় তাহলেও তা বিপদজনক হতে পারে।
দুই প্রকারের কুকি নিয়ে আমরা এখানে আলোচনা করবো।

  • Magic Cookies
  • HTTP Cookies

Magic Cookies কিছুটা পুরনো টেকনোলজিতে ব্যবহার করা হতো যেটা আসলে ইনফর্মেশনের প্যাকেট হিসেবে বুঝায়। ম্যাজিক কুকিজ কোনরকম পরিবর্তন ছাড়া ইনফর্মেশন আদান প্রদানে ব্যবহার করা হতো। সাধারণত এটি কম্পিউটার ডাটাবেজ লগিন যেমন বিজনেস ইন্টারনাল নেটওয়ার্কে ব্যবহার করা হতো। এই কনসেপ্ট এর ওপর ভিত্তি করেই বর্তমানে আমাদের এই আধুনিক ওয়েবসাইট কুকি তৈরি করা হয়েছে।

HTTP Cookies তৈরি করা হয়েছে ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর জন্য। যা আসলে ইন্টারনেট ব্রাউজিং ডেভেলপার লু মন্টুলির হাত ধরেই এর প্রথম পথচলা শুরু হয়। লু মন্টুলি অনলাইন শপিং ওয়েব সার্ভার গুলোর লোড কমাতে ম্যাজিক কুকির কনসেপ্ট ব্যবহার করে ওয়েবসাইটের জন্য HTTP Cookies তৈরি করেন।

HTTP Cookies বর্তমানে সব ওয়েবসাইটেই ব্যবহার করা হচ্ছে ইউজারদের এক্সপেরিয়েন্স উন্নত করার জন্য। কিন্তু এই কুকিই স্পাইং এর জন্য সহজ অস্ত্র হতে পারে।

আগেই বলেছি ওয়েবসাইট কুকিজ আপনার পার্সোনাল ডেটা জমা রাখে যাতে পরবর্তীতে ওই ওয়েবসাইটগুলো আপনার কম্পিউটারকে চিনতে পারে। এবং সেই অনুযায়ী আপনাকে সুবিধা দিয়ে থাকে। অনেকেরই মনে হতে পারে যে এই ছোট ডেটা ফাইল কোথায় জমা হয়। বিভিন্ন ব্রাউজার কম্পিউটারের বিভিন্ন লোকেশনে এই ইনফর্মেশন জমা রাখে। এই সিস্টেমটি নেম ভেলু পেয়ার হিসেবে কাজ করে। যখনি কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা হয় ওয়েব সার্ভার একটি নেম ভেলু পেয়ার তৈরি করে যা লোকাল স্টোরেজে জমা হয়। পরবর্তীতে সার্ভার ব্রাউজার কে ওই নেম ভেলু পেয়ার এর ওপর ভিত্তি করে সনাক্ত করে। এটিই কুকিকে বলে দেয় কোথায় ডেটা সেন্ড করতে হবে এবং কি পুনরায় মনে করতে হবে। এটা কিছুটা টোকেনের মতো কাজ করে ।

কুকি কেনো ব্যবহার করা হয়?

ওয়েবসাইট ভিজিটের প্রবাহরেখা বজায় রাখতে কুকিজ ব্যবহার করা হয়। কুকি ব্যবহার করা না হলে পুনরায় আপনাকে লগ ইন ইনফর্মেশন দিয়ে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। অথবা যারা শপিং কার্ট এ শপিং লিস্ট করে রেখেছেন তা পুনরায় দিতে হবে ।  বারবার ওয়েবসাইটে লগইন ও পুনরায় শপিং কার্ট তৈরি অনেক সময় বিরক্তিকর ব্যাপার হয়ে দাড়াতে পারে। তাই যারা প্রায় প্রতিদিন একই ওয়েবসাইট ভিজিট করেন তাদের ব্রাউজিং এর প্রবাহরেখা বজায় রাখতে কুকি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।

কুকি ব্যবহারের কিছু উদ্দেশ্য:

১। সেশন ম্যানেজমেন্ট: কুকি ওয়েবসাইটকে ইউজার চিনতে সাহায্য করে । ইউজার কি কি ব্যবহার করছে , তার কি কি পছন্দ, তার লগইন ইনফর্মেশন কি এগুলো মনে রেখে ব্রাউজিং সহজ করে দেয়।

২। পারসোনালাইজেশন: ওয়েবসাইটে কি কি দেখালে আপনার উপকার হবে বা আপনি কোন জিনিস টি খুজছেন তা এই কুকি সহজ করে দেয়। ওয়েবসাইটে আপনার গতিবিধি লক্ষ্য রেখে কি কি অ্যাড দেখালে আপনার পছন্দ হবে সেটি নিয়ন্ত্রণ করে।

৩। ট্র্যাকিং: শপিং সাইট আপনি কি কি জিনিস পূর্বে দেখেছেন সেগুলো ট্রাক করতে এটি ব্যবহার করে। ফলে শপিংয়ে কি কি জিনিস সাজেস্ট করলে আপনার পছন্দ হবে এবং আপনার শপিং কার্টে কি কি রয়েছে সেগুলো সেভ করে রাখতে পারে।

কুকি মূলত ইউজারের বেনিফিটের জন্যই কাজ করে । কিন্তু এর থেকে ওয়েব ডেভেলপারাও সুবিধা পায়। কুকি ইউজারের লোকাল স্টোরেজে সেভ হয়ে থাকে ফলে সহজেই ওয়েবসাইট সার্ভার তাদের স্টোরেজ ফ্রি করে রাখতে পারেন। তাই তাদেরকে বাড়তি স্টোরেজ কস্ট গুনতে হয় না। ফলে তারা ওয়েবসাইট মেন্টেনেন্সে খরচ কমিয়ে ফেলতে পারেন।

সেশন কুকি ইউজার যখন ওয়েবসাইট ব্রাউজ করেন তখন কম্পিউটার র‍্যামে সেভ হয়ে থাকে। ওয়েবসাইট থেকে বের হয়ে গেলে তা সাথে সাথে মুছে যায়। এটি কখনই ডিভাইস স্টোরেজে জমা থাকে না । সেশন কুকি ব্রাউজার প্লাগিন এবং ব্যাক বাটনকে ঠিকমতো কাজ করতে সাহায্য করে।

আরেক ধরেন কুকি যা পারসিসটেন্স কুকি নামে পরিচিত । এটি পারমানেন্টলি কুকিকে ডিভাইসে সেভ করে রাখে।

কুকি কেনো বিপদজনক হতে পারে?

বেশিরভাগ কুকি ইউজারের ব্রাউজিং কে সহজ করে তুলতে ব্যবহার করা হয়। কুকি শুধু একটি ইনফর্মেশনের টুকরো মাত্র । এটি কখনোই কম্পিউটার ভাইরাসের মতো আচারন করতে পারে না। কিন্তু এটি যদি খারাপ মানুষের হাতে পড়ে যায় তবে বিপদজনক হতে পারে।

ফাস্ট পার্টি কুকিজ আপনি যখন যে ওয়েবসাইট ব্রাউজ করছেন সেখানে থেকে আসে। এটা বিপদজনক নয় যদি না এটি ডেটা ব্রিচের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

থার্ড পার্টি কুকিজ আপনি যে ওয়েবসাইট ব্রাউজ করছেন সেটি থেকে আসে না। এই কুকিজ গুলো সাধারণত বিজ্ঞাপনের জন্য তৈরি করা হয় । এক ওয়েবসাইটে অন্য ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপন দিতে এটিকে তৈরি করা হয়। আপনি যদি ১০ টি বিজ্ঞাপন দেখেন তাহলে ১০ টি কুকিজ তৈরি হবে। এমনকি আপনি যদি বিজ্ঞাপনে ক্লিক নাও করে থাকেন তাহলেও এটি তৈরি হবে। এসব থার্ড পার্টি কুকি বিপদজনক কারন এটি অনুমতি ছাড়াই আপনার পার্সোনাল ডেটা চুরি করে নিতে পারে। তাই এগুলো থেকে মুক্তি পেতে ব্রাউজার থেকে ব্লক করে দিন।

কুকিজ কেনো বিপদজনক হতে পারে?

জম্বি-কুকি হল একপ্রকার পার্মানেন্ট কুকি যা ইউজারের পিসিতে ইন্সটল হয়ে থাকে । এটি খুবই মারাত্মক । একবার ইন্সটল হয়ে গেলে রিমুভ করা প্রায় অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়। এমনকি একবার ডিলিট করে দিলেও পুনরায় চলে আসে। এটি আসলে ফ্ল্যাশ প্লেয়ার বিন স্টোরেজে সেভ হয়ে থাকে তাই একে ফ্ল্যাশ কুকিও বলা হয়ে থাকে।

যেভাবে কুকি রিমুভ করবেন:

প্রত্যেক ব্রাউজারে প্রাইভেসি অপশনে গেলেই কুকি রিমুভ করার পথ পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে আপনি চাইলে যেকোনো ওয়েবসাইটের এটি ডিলিট করতে পারবেন। অ্যাড ব্লকার , বা থার্ডপার্টিকুকি ব্লক করে এমন এক্সটেনশন ব্রাউজারে ইন্সটল করে রাখবেন। বর্তমান সব ব্রাউজার থেকেই থার্ড পার্টি কুকিজ ব্লক করে রাখা যায় । প্রায়ই কুকি ডিলিট করে রাখা আপনাকে প্রাইভেসি ব্রিচের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে।

যেভাবে কুকি রিমুভ করবেন

আরেকটি সহজ উপায় হলো ভিপিএন ব্যবহার করা। ভিপিএন আপনার স্থানীয় সার্ভারকে দূরের কোনো সার্ভার দিয়ে পরিবর্তন করে দেয় । ফলে কুকি গুলো অন্যদেশের দূরের সার্ভার দ্বারা তৈরি হবে যা আপনার প্রাইভেসি লুকিয়ে রাখতে সাহায্য করবে।

তথ্যসূত্রঃ

https://www.kaspersky.com/resource-center/definitions/cookies

Why are internet cookies called cookies?

(Visited 829 times, 47 visits today)


শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে