MD.Raju / মে 21, 2020

কীভাবে একটি পারফেক্ট Resume লিখতে হয়

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

Resume হচ্ছে আপনার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে মূল্যবান কাগজের টুকরো। আপনি চাকরির জন্য ইন্টারভিউতে ডাক পাবেন কি না তা অনেকটাই নির্ভর করে আপনার Resume এর উপর। এমন কি বর্তমান সময়ে অনলাইন জবের ক্ষেত্রেও Resume সাবমিট করতে হয়। কিন্তু হয়ত আপনি জানেনই না কিভাবে Resume লিখতে হয়। আর চিন্তা নয়, আজ আমরা আলোচনা করব কিভাবে একটি পারফেক্ট Resume লেখা যায়।


প্রথমে জেনে নিই আসলে Resume কি ?

Resume হচ্ছে এক বা একাধিক পৃষ্ঠার এমন একটি রেকর্ড যেখানে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা, পেশাগত সাফল্য, শিক্ষা, দক্ষতা এবং অন্যান্য বিবরণ সারাংশ আকারে উল্লেখ করা হয়। Resume হচ্ছে ইন্টারভিউ গ্রহন কারীদের ইম্প্রেস করার প্রধান হাতিয়ার। ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে না,” First impression is everything”. আমাদের মধ্যে অনেকেই CV এবং Resume কে একই জিনিস মনে করে। আসলে কিন্তু তা নয়। CV তে আপনার ক্যারিয়ারের সকল খুটিনাটি বিষয় সবিস্তারে উল্লেখ করা থাকে। কিন্তু Resume তে আপনার ক্যারিয়ারের উল্লেখযোগ্য দিক গুলো সারাংশ আকারে তুলে ধরা হয়।

একটি পারফেক্ট Resume তে যে সকল সেকশন/অংশ গুলো আপনাকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে তা নিম্নে তুলে ধরা হলঃ

Header & Contact Info:

আপনার Resume এর উপরিভাগে থাকবে হেডার সেকশন। এখানে আপনি আপনার নাম লিখবেন। তার নিচেই “কন্টাক্ট ইনফরমেশন” সেকশনে আপনার ফোন নম্বর, ব্যক্তিগত ইমেইল এড্রেস, ঠিকানা উল্লেখ করবেন। এছাড়া সামাজিক প্রোফাইল বা ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটের লিংক ও দিতে পারেন।

Professional Summary:

হেডার সেকশনের নিচেই থাকবে আপনার Professional Summary. এই অংশে তিন থেকে চার টি বাক্যে উল্লেখ কর‍তে হবে, আপনি কে? পূর্বে আপনি কি কি কাজ করছেন এবং আপনি কেন এই কাজের জন্য উপযুক্ত? এই অংশে আপনি কি চান সেটা উল্লেখ না করে কেন তারা আপনাকে নিয়োগ দিবে, আপনি কোম্পানিকে এগিয়ে নিতে কিভাবে সাহায্য কর‍তে পারবেন সেগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করবেন।

Skills:

প্রফেশনাল সামারির পরের অংশ হল  skills বা দক্ষতা . Resume এর দ্বিতীয় গুরুত্বপুর্ণ অংশ হচ্ছে এটি।
নিয়োগকারীরা সাধারণত এই অংশ প্রথম লক্ষ করে থাকেন। তারা সর্বদা দক্ষতা সম্পন্ন প্রার্থীদের কে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকেন।
এই অংশে আপনার দক্ষতা সমুহ বুলেট পয়েন্ট ব্যবহার করে হাইলাইট করবেন। যেন নিয়োগদাতা সহজেই অনুমান করতে পারে যে আপনি ঐ কাজের জন্য যোগ্য কিনা।

Work Experience:

Resume এর সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ সেকশন হচ্ছে এটি।
এই অংশে আপনি পূর্বের কাজের বিবরণ ও অভিজ্ঞতা তুলে ধুরুন। এখানে আপনার পূর্বের কোম্পানির নাম, কোম্পানির ঠিকানা, যে পদে কাজ করতেন তার নাম এবং বিশেষ কোন অর্জন থাকলে তা বুলেট পয়েন্টসহ উল্লেখ করুন।

Education:

বর্তমানে প্রায় সকল নিয়োগকারীরাই হাইলি এডুকেডেট ক্যান্ডিডেট চান তাদের প্রতিষ্ঠানের জন্য। তাই গুরুত্ব সহকারে এই অংশ টি পূরন করুন। এ অংশে আপনার স্কুল,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম ও এই সব প্রতিষ্ঠান থেকে যেসকল ডিগ্রি অর্জন করেছেন তা উল্লেখ করুন।

Additional Experience:

আপনার যদি অতিরিক্ত কোন অভিজ্ঞতা থেকে থাকে তবে তা হবে আপনার জন্য প্লাস পয়েন্ট। সেই অভিজ্ঞতা গুলো এই অংশে উল্লেখ করতে ভুলবেন না। এখানে আপনি আপনার হবি/শখ ও উল্লেখ করতে পারেন। তবে লক্ষ্য রাখবেন এই সেকশনটি যেন বিস্তৃত না হয়।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ
★ Resume এর মার্জিন কমপক্ষে ০.৭ ইঞ্চি হতে হবে।
★ সেকশন / অংশগুলোর মধ্যে পর্যাপ্ত ফাঁকা থাকতে হবে।
★ আপনার পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি সংযুক্ত করতে হবে।
★ Resume কে pdf ফাইল রুপে সেন্ড না করে word ফাইল রুপে সেন্ড করবেন।
★ Resume প্রিন্ট করলে হাই কোয়ালিটি প্রিন্টার ও উন্নত মানের কাগজ ব্যবহার করুন।
★ Resume কে এক থেকে দুই পেজের ভিতর সীমাবদ্ধ রাখুন।

আজ তাহলে এই পর্যন্ত। এই পোষ্ট পড়ার পরও যদি আপনি Resume তৈরিতে সমস্যার সম্মুখীন হন তবে নিচে কমেন্ট করুন।
ধন্যবাদ।
আস সালামু আলাইকুম।

(Visited 27 times, 27 visits today)

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Comments

Submit a Comment

Must be required * marked fields.

:*
:*