kala-vuna-recipe-bangla vibe

মাহবুবা হক / মে 10, 2018

গরুর মাংসের কালা ভুনা রেসিপি

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে

গরুর মাংসের কালা ভুনা- সবার প্রিয় এই জিভে জল আনা গরুর মাংসের খাবারটির মূল উৎস কিন্তু ইরান!  যদিও আমাদের ঐতিহ্যের সাথে এটি মিশে গেছে বিরিয়ানি, কাবাবের মত মোগলাই খাবারের মতো।  সারা দেশের প্রায় সব হোটেল, রেস্তোরা গুলোতে আপনি পাবেন এই কালা ভুনা। চট্রগ্রামে বিবাহ শাদী থেকে সাধারন মেজবানেও এই কালা ভূনা করা হয়। জানা যায়, এই কালা ভূনার বিশেষ বাবুর্চী গ্রুপও আছে সেখানে! তারা অনেকে আবার বিদেশে যেয়েও নাকি এই কালা ভূনা রান্না করে দিয়ে আসেন। আমাদের ব্যাক্তিগত পছন্দের তালিকাতে জায়গা করে নেয় এই খাবার। অতিথিকে খুশী করতে  রান্নার এই একটা পদই যথেষ্ট।  চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী কালাভুনা বানানোর রেসিপিটা হয়ত অনেকেই অনেকভাবে করে থাকেন। তবে এই রেসিপি ফলো করলে  কালো রং সঠিকভাবে আসতে বাধ্য। এটি রান্না একটু সময় সাপেক্ষ এবং ধৈর্য্য ধরে করতে হবে। আপনি যত সময় নিয়ে করবেন তত মজা হবে আর চকচকে হবে। চলুন জেনে নেই চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী গরুর মাংসের কালা ভুনার সঠিক রেসিপিঃ

গরুর মাংসের কালা ভুনা রেসিপি

গরুর মাংসের কালা ভুনা সাধারণ মাংস রান্নার মতোই। শুধু রান্না শেষে আবার পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ দিয়ে সরিষার তেলে আলাদা কড়াইতে ভুনা করতে হয়।

উপকরন:

গরুর মাংস- ২ কেজি ( কিউব করে সমান সাইজে কাটলে ভালো দেখাবে। আর সিদ্ধ হবে একসাথে)

টক দই- আধা কাপ ( টক দই না থাকলে লেবুর রস আর তরল দুধ দিতে পারেন)

দারচিনি- ২ টা বড়

ছোট এলাচ ৫ টা

স্টার আনিস ২ টা

কালো এলাচ ১ টা

গোলমরিচ গোটা কয়েকটা

তেজপাতা বড় ২-৩ টা

হলুদ গুঁড়া- ১ চা.চা.

মরিচ গুঁড়া- ৩ চা চা (কালা ভুনাতে বেশি ঝাল দিতে হয় )

ধনে গুঁড়া- ১ চা চা

জিরা গুঁড়া- ১ চা চা

আদা ও রসুন পেস্ট ১/২ কাপ

পেয়াজ কুচি-বড় ২ টি

গরম মশলা গুঁড়া ১ চা চা

লবন স্বাদমতো

সরিষার তেল ১ কাপ

নামানোর আগে দিতে হবে স্পেশাল মসলাঃ রাধুনি গুঁড়া, জিরা গুঁড়া ও জায়ফল গুঁড়া মিশিয়ে আলাদা কোটায় রাখুন।

বেরেস্তার জন্য:

পেঁয়াজ ২ বড় টি

কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি (ঝাল বেশী হলে কম দিবেন)

সরিষার তেল

 প্রনালী:

১। প্রথমে টক দই বাদে সব মশলা একসাথে মাখিয়ে আধা ঘন্টা ম্যারিনেট করতে হবে। এই সময় সরিষার তেলের পরিমান হবে ১/৩ কাপ

২। এবার কড়াইতে মশলা সহ মাংস ঢেলে দিয়ে অল্প আচে বসিয়ে দিতে হবে ও পাঁচ মিনিট পর পর নাড়তে হবে।

৩। ১০ মিনিট পর টক দই দিয়ে নেড়ে দিতে হবে। দেখবেন মাংস থেকেই অনেক পানি বের হচ্ছে। আলাদা পানি দিতে হবে না বরং ওই পানিতেই আগামী একঘন্টা মাংস সিদ্ধ হবে। এবং আঁচ অবশ্যই কম থাকবে যাতে ১ ঘন্টা পানিটা থাকে।
একঘন্টা পর দেখবেন যে মাংস অনেকটাই সিদ্ধ হয়ে এসেছে ।

৪। এবার আঁচটা বাড়িয়ে অল্প করে পানি দিবেন আর নাড়তে থাকবেন। মশলা পুড়বে না কিন্ত রং কালো হবে মাংস কষানোর জন্য। এই প্রসেসটা চলবে আরো আধাঘন্টা। বার বার অল্প পানি দিবেন এবং নাড়তে থাকুন । দেখবেন কালো রং চলে এসেছে।

৫। এবার ফ্রাইপ্যান্  এ বাকি ২/৩ কাপ সরিষার তেল দিয়ে পেয়াজ ও কাঁচা মরিচ বেরেস্তা করে নিবেন। এরপর বেরেস্তাটাকে মাংসের হাড়িতে তেলসহ ঢেলে দিবেন ও আরও মিনিট দশেক কষাবেন।

৬। শেষে স্পেশাল মশলা দিয়ে ৫ মিনিট নেড়ে নামিয়ে নিবেন। ব্যস তৈরী কালাভুনা।

৭। সাদা রঙ এর বাটি বা ডিশে পরিবেশন করুন। তাহলে রঙ টা ভালো দেখাবে। সুবাসে সবাই ইতোমধ্যে টেবিলে প্লেট নিয়ে বসে গেছে দেখুন গিয়ে।

কেমন লেগেছে খেতে গরুর মাংসের কালা ভুনা , কমেন্টে জানাবেন কিন্তু।

রসুনের আচার-সরিষার তেল দিয়ে এবং তেল ছাড়া

 

(Visited 796 times, 2 visits today)


শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে