MD Musfiqur Rahman / সেপ্টেম্বর 8, 2020

Panjin Red Beach : একটুকরো লাল স্বর্গ

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে

আচ্ছা, একটি সমুদ্র সৈকত দেখতে কেমন? সম্ভবতই আপনার মনে বাড়ির পাশের কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের একটি অবয়ব ফুটে উঠবে। সেখানে দেখবেন, শুধু বালি আর লম্বা লম্বা নারিকেল গাছ। কিন্তু এমন এক সৈকত আছে যেখানে এসব কিছু নেই!! আছে শুধু দিগন্ত জুড়ে লাল নল খাগড়ার এক বাগান!

লাল সমুদ্র

এটি একটি লাল সৈকত সদৃশ্য জায়গা, যা চায়নার পাঞ্জিন শহরে অবস্থিত। এটা Panjin Red Beach নামে অধিক পরিচিত। পাঞ্জিন রেড বিচ একটি সুরক্ষিত প্রাকৃতিক জলাভূমি, যা অনন্য সুন্দর ভাবে রঙ্গিন নলখাগড়া দ্বারা বেষ্টিত এবং মৌসুমের একটা সময় এটা দেখতে লাল সমুদ্রের মত মনে হয়। কিন্তু আদতে এটি কোনো সমুদ্র সৈকত না। এটি মূলত লিওহোয়ে নদীর অববাহিকা, যা নলখাগড়া দ্বারা আচ্ছাদিত একটি প্রাকৃতিক জলাভুমি। এটি বিশ্বের বৃহত্তম জলাভূমির একটি।

লিওহোয়ে নদীটির পানি পানযোগ্য নয় অর্থাৎ এটি মিঠা পানির নদী না। এ নদীর পানি খুবই উচ্চ মাত্রায় লবনাক্ত ও ক্ষারীয় প্রকৃতির। এই পরিবেশই সয়েদা জাতীয় নলখাগড়া গুলোর বৃদ্ধির জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যেহেতু এই ক্ষারীয় ও লবণাক্ত পরিবেশ শুধুমাত্র লিওহোয়ে নদীর অববাহিকার পরিবেশের সাথে সাদৃশ্য পূর্ণ, তাই এখানেই সয়েদা নামক নলখাগড়া গুলো বেড়ে ওঠে।

পাঞ্জিনে ঋতু পরিবর্তন

সয়েদা জাতীয় নলখাগড়া গুলোর রং ঋতুর সাথে পরিবর্তিত হয়। বসন্ত ও গ্রীষ্মের সময় সয়েদা সাধারণ সবুজ থাকে। বর্ষাকালে সয়েদার সবুজ রং পরিবর্তিত হয়ে উজ্জ্বল লাল বর্ণ ধারণ করে এবং দিগন্ত জুড়ে সমুদ্রের মত লাল আভা ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে। প্রকৃতির অপরূপ এক সৌন্দর্যের দেখা মেলে এসময়। এরা শীতকালে মারা যায়। মারা যাওয়ার আগে লাল বর্ণের পরিবর্তে চমৎকার বেগুনী বর্ণ ধারণ করে এই নলখাগড়া গুলো। এ যেনো এক স্বর্গীয় রূপ প্রকৃতির।

রেড বিচে প্রায় ৪০০ প্রজাতির পাখির বসবাস। এছাড়া মৌসুমে ২৫০ প্রজাতির অতিথি পাখি আসে এই প্রাকৃতিক জলাভূমির সৌন্দর্য উপভোগ করতে। এই অতিথি পাখি গুলো পূর্ব এশিয়া থেকে অস্ট্রেলিয়া পাড়ি দেয়। যথেষ্ট ভাগ্যবান হলে বিপন্ন ক্রাউন ক্রেনস এবং ব্ল্যাক বেকড গুলগুল দেখতে পাওয়া যায়। এছাড়াও, পাঞ্জিন শহর “মাছ ও ধানের জমি” নামেও খ্যাত। সুতরাং সেখানে গেলে দয়া করে স্থানীয় মিটেন ক্র্যাবটি অবশ্যই চেখে দেখবেন, যা এখানকার অন্যতম বিখ্যাত একটি খাবারের পদ। স্বল্প-দানা চালও বিখ্যাত। এটি ২০০৮ বেইজিং শীতকালীন অলিম্পিকের মনোনীত সরকারী ধান ছিলো।

লিওহোয়ে নদীর পথ

কিভাবে যাবো : এটি একটি জনপ্রিয় ভ্রমণের জায়গা। তাই জায়গাটি রাষ্ট্র কর্তৃক সুরক্ষিত থাকে। জনসাধারণের জন্য ৬৫০০ বর্গফুট লম্বা কাঠের কাঠামো করা আছে। যেখানে অবস্থান করে প্রেমিক মন এই অপরূপ স্বর্গীয় দৃশ্য উপভোগ করতে পারে। ভেতরে হাটার জন্য ও বসে বিশ্রাম নেয়ার ব্যবস্থা করা আছে।

রেড বিচে যাওয়ার জন্য প্রথমে চায়নার পাঞ্জিনে পৌছাতে হবে। চায়নার মধ্যে বাস-ট্রেনে করে যাতায়াত সুবিধাজনক। এছাড়া সরাসরি বিমান যোগে পাঞ্জিন শহরে যেতে চাইলে Shenyang TaoXian International, Dalian ZhouShuiZi International অথবা JinZhou XiaoLingZi বিমানবন্দরে নামতে হবে।

পাঞ্জিন শহর থেকে রেড বিচ রিসোর্টে যাওয়ার জন্য কয়েক ধরনের ব্যবস্থা আছে। বাসের মাধ্যমে পাঞ্জিন শহর থেকে রিসোর্টে যাওয়া যাবে। রিসোর্ট থেকে রেড বিচে ঘোরার জন্য টুক-টুক, ট্যাক্সি বা মিনিবাস ব্যবহার করা হয়। যাতায়াতের সকল পর্যায়ে দরকষাকষি ও ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হয়। তাই এ ব্যাপারে পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকা সুবিধাজনক।

এটি চায়নার অন্যতম ভ্রমণের জায়গা। প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক এখানে ঘুরতে আসে। এছাড়াও এখানে অনেক মুভির সুটিং-ও হয়। তাই আপনিও ঘুরে দেখে আসতে পারেন এবং যান্ত্রিক জীবনের ধকলকে কাটিয়ে উঠে নিছক নিজের জন্য কিছু সময় ব্যয় করতে পারেন, যা শেষ বয়সে অনেক সুন্দর একটি স্মৃতি হয়ে থাকবে বলে ধরে নেয়া যায়।

(Visited 1,459 times, 1 visits today)


শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে