MD.Raju / জুলাই 26, 2020

শিশুদের উপযোগী সিনেমা কিভাবে নির্বাচন করবেন

শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে

আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সকলেই কুশলে আছেন। বেশিরভাগ বাচ্চারা চলচ্চিত্র উপভোগ করে, যদিও তারা একা চলচ্চিত্রের বিষয়বস্তুর বিচার করতে বা বুঝতে পারে না। এজন্য পিতামাতাদের তাদের বাচ্চাদের বয়সের উপযুক্ত সিনেমা দেখতে গাইড করতে হবে। ডিভিডি স্টোরের কর্মচারীর কাছ থেকে শুনে বা সিনেমার পোস্টারগুলি দেখে আপনার সন্তানের জন্য সিনেমা নির্বাচন করা উচিত হবে না। আপনার ছোট বাচ্চা কী দেখতে চায় এবং তার পক্ষে আসলে কী উপযুক্ত তা কিন্তু দুটি খুব আলাদা বিষয়।

আপনি আপনার সন্তানের জন্য উপযুক্ত সিনেমা বাছাই কীভাবে করবেন এই পোস্টে সে সম্পর্কে কিছু পয়েন্ট উল্লেখ করা হল।
আপনার সন্তানের বয়স অনুযায়ী কোন চলচ্চিত্র উপযুক্ত কিনা তা জানতে এই গাইডলাইনগুলি আপনাকে সাহায্য করবে বলে আশা করছি।


বাচ্চাদের জন্য চলচ্চিত্র নির্বাচন করার সময় নিম্নোক্ত বিষয়গুলি লক্ষ্য রাখা আবশ্যক।

★ ভায়োলেন্স বা হিংস্র দৃশ্য রয়েছে এমন চলচ্চিত্র শিশুদেরকে দেখতে দেয়া যাবে না।

★ আপনার শিশুকে বিরক্ত করতে পারে এমন দৃশ্য থাকলে সে মুভিও তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।

★ চলচ্চিত্র টি হতে হবে নগ্নতা থেকে মুক্ত। যৌনতার কোন দৃশ্য থাকলে সে চলচ্চিত্র টি শিশুদেরকে দেখতে দেয়া যাবে না।

★ আপত্তিজনক ভাষা এবং বর্ণ বা ধর্ম বিদ্বেষ বা বৈষম্যপূর্ন ডায়লগ রয়েছে এমন মুভি ও বাচ্চাদেরকে দেখতে দেয়া উচিত নয়।

★ চলচ্চিত্র নির্বাচনের পূর্বে আপনি মুভি টি নিজে আগে একবার দেখে নিতে পারেন অথবা পূর্বে দেখেছেন এমন কারো নিকট থেকে মুভিটি সম্পর্কে রিভিউ নিয়ে, পরে আপনার বাচ্চাকে সিনেমাটি দেখার অনুমতি দিতে পারেন।

বাচ্চাদের জন্য উপযুক্ত চলচ্চিত্রগুলি বেছে নেওয়ার পদক্ষেপসমুহ:

★ আপনাকে মুভিগুলি সনাক্ত করার সময় পিজি (প্যারেন্টাল গাইডেন্স) রেটিংস দেখে নিন এবং সহিংসতা, আক্রমণাত্মক ভাষা এবং কামুক দৃশ্য রয়েছে এমন সিনেমা বাদ দিন। উদাহরণস্বরূপ, PG-13 রেটিং দেয়া ছবি গুলো ১৩ বছর বয়সী শিশুদের জন্য উপযুক্ত হলেও ১৩ বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে।

★ বাচ্চাদের চলচ্চিত্রের রেটিং দেয় এমন ওয়েবসাইটগুলি সন্ধান করুন এবং মায়েদের দেয়া রেটিংগুলি পরীক্ষা করুন। আপনার যদি ইন্টারনেট অ্যাক্সেস না থাকে তবে আশেপাশের অন্যান্য পিতামাতাকে জিজ্ঞাসা করুন। তারা এবং তাদের সন্তানরা সাম্প্রতিককালে কোন সিনেমাগুলি দেখেছে সে সম্পর্কে অনুসন্ধান করুন এবং তারপরে সিদ্ধান্ত নিন যে আপনি বাচ্চাদের এই সিনেমাগুলি দেখার অনুমতি দিতে চান কিনা। এসব ব্যাপারে অন্য একজন পিতামাতার দৃষ্টিভঙ্গি সর্বদা সহায়তা করে।

★চলচ্চিত্রগুলির প্রিভিউ দেখুন। এর মাধ্যমে আপনি কোনও সিনেমার সম্পুর্ণ দেখার সময় কী প্রত্যাশা করতে পারেন তা উপলব্ধি করতে পারবেন। এছাড়াও, সিনেমা টি যদি কোন উপন্যাস বা গল্পের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়ে থাকে তবে আপনি সেই বইটি পড়লে মুভিটি সম্পর্কে একটি ধারনা পেতে পারেন।

★ আপনার বাচ্চাদের দেখানোর আগে মুভিটি নিজেই দেখুন। আপনার সন্তানের পক্ষে সিনেমাটি উপযুক্ত কিনা তা বিচার করার পক্ষে এটিই সেরা উপায়।

★ আপনার শিশুটি সিনেমা দেখার জন্য আবেগগতভাবে প্রস্তুত কিনা সেদিকটি অবশ্যই গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করে নিবেন। কারন সিনেমা দেখার বিষয়টিও আপনার সন্তানের ব্যক্তিত্ব এবং সংবেদনশীল বিকাশের অনেক গুরুত্বপুর্ণ।

চলচ্চিত্র নির্বাচন করার সময় মনে রাখবেন যে শিশুদের মন মানসিকতা ক্রমাগত বিকাশ লাভ করে। কোনও বাচ্চার মধ্যে ভাল শিক্ষা দান ও সুস্থ বিকাশের জন্য তাকে ভাল সঙ্গীত, দৃশ্যাবলী এবং কিছু শেখার এবং নৈতিকতাপূর্ণ একটি ভাল সিনেমা দেখানোর চেস্টা করা আবশ্যক । একটি শিশু মুভি দেখার পরে নতুন কিছু শিখতে হবে, এবং কেবল নির্বোধ বিনোদনের উৎস হিসাবে সিনেমাগুলিকে ব্যবহার করা উচিত নয়।
আজ আর নয়।
সুস্থ থাকুন,ভাল থাকুন।

(Visited 22 times, 1 visits today)


শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে